রাসায়নিক বন্ধন-নবম দশম রসায়ন পঞ্চম অধ্যায় নোট

Sharing is caring!

রাসায়নিক বন্ধন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা। আয়নিক বন্ধন সমযোজী বন্ধন, আয়ন, যৌগমূলক, ধাতববন্ধন ও যোজ্যতা ইলেকট্রনসহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। অধ্যায় ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর ও সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর নিয়ে আলোচান করা হয়েছে।

এই নোটটি পাঠ শেষে শিক্ষার্থীরা

  • যোজ্যতা ইলেকট্রনের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • মৌলের প্রতীক, যৌগমূলকের সংকেত ও এগুলোর যোজনী ব্যবহার করে যৌগের সংকেত লিখতে পারবে।
  • নিষ্ক্রিয় গ্যাসের স্থিতিশীলতা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • অষ্টক ও দুইয়ের নিয়মের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • রাসায়নিক বন্ধন এবং তা গঠনের কারণ ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • আয়ন কীভাবে এবং কেন সৃষ্টি হয় তা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • আয়নিক বন্ধন গঠনের প্রক্রিয়া ‍বর্ণনা করতে পারবে।
  • সমযোজী বন্ধন গঠনের প্রক্রিয়া বর্ণনা করতে পারবে।
  • আয়নিক ও সমযোজী বন্ধনের সাথে গলনাঙ্ক, স্ফুটনাঙ্ক, দ্রাব্যতা, বিদ্যুৎ পরিবাহিতা এবং কেলাস গঠনের ধর্ম ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • ধাতব বন্ধনের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • ধাতব বন্ধনের সাহায্যে ধাতুর বিদ্যুৎ পরিবাহিতা ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • স্থায়ীভাবে সহজপ্রাপ্য দ্রব্যের মধ্যে আয়নিক ও সমযোজী যৌগ শনাক্ত করতে পারবে।
  • সমযোজী যৌগের বিভিন্ন আকৃতির কারণ ব্যাখ্যা করতে পারবে।
  • এই অধ্যায়ের সৃজনশীল ও বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর সম্পর্কে ধারণা পাবে।

নোটটির বৈশিষ্ট্য-

রসায়ন নোট (Chemistry Note): NT Bangla নোটটির বৈশিষ্ট্য হল শিক্ষার্থীদের জন্য সহজ বাংলা ভাষায় রাসায়নিক বন্ধন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বিশ্লেষণ করা। পঞ্চম অধ্যায়ের সাজেশন, সুপার টিপস, সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর এবং বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর সম্পর্কে বিশদ আলোচনা।   রাসায়নিক বন্ধন এর গুরুত্বসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। অধ্যায় ভিত্তিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি পরীক্ষায় ভাল ফলাফল এবং দক্ষতা অর্জনে সহায়ক। আশা রাখি পাঠ্য পুস্তকের পাশাপাশি নোটটি অনুশীলন করলে দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে।

নবম ও দশম রসায়ন পঞ্চম অধ্যায় রাসায়নিক বন্ধন থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, সৃজনশীল ও বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর pdf পেতে নিচের ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করুন।

Download

আমার মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীসহ সকল শিক্ষার্থীকে শিক্ষায় সহায়তা করে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা। পরীক্ষায় ভালো সাফল্য আনতে এবং পরীক্ষা ভীতি দূর করতে এই নোটটি পাঠ্য বইয়ের সহায়ক হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। বোর্ড নির্দেশনা অনুসারে জ্ঞান, অনুধাবন, প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতা স্তরের প্রশ্নোত্তর গুলি কিভাবে করতে হয় তা বিশ্লেষণ করে দেখানো হয়েছে। উদাহরণ ও প্রয়োজনীয় চিত্রের মাধ্যমে জটিল সমস্যাগুলি সমাধান করে দেখানো হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা অনুশীলনের মাধ্যমে জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করতে সক্ষম হবে। এছাড়া বিগত সালের পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নগুলি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়েছে। যা শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা সংক্রান্ত সঠিক ধারনা দিতে সক্ষম হবে। জ্ঞানের এই প্রক্রিয়াটির আওতায় দেশের অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পরিবেশগত পটভূমির পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও সক্ষম নাগরিক হওয়া মাধ্যমিক শিক্ষার বিষয়। এই ওয়েব সাইটের আমার লক্ষ্য সরকারের আধুনিক ডিজিটাল শিক্ষার অগ্রগতি আনতে হবে। সুতরাং, আমার অনুরোধ শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা সকলেই আমার ওয়েব সাইটে প্রবেশ করুন এবং আমাকে কাজ করতে উৎসাহিত করুন।

সৃজনশীল প্রশ্ন কাঠামো

সৃজনশীল প্রশ্ন পদ্ধতিতের উদ্দেশ্য হলো শিক্ষার্থীর চিন্তন দক্ষতার চারটি স্তর মূল্যায়ন করা। চারটি স্তর হলো-জ্ঞান, অনুধাবন, প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতা। শিক্ষার্থীর এ চারটি স্তরকে মূল্যায়নের জন্যে দুই ধরনের প্রশ্ন হয়ে থাকে, যথা-সৃজনশীল (রচনামূলক) প্রশ্ন ও বহুনির্বাচনি প্রশ্ন।

সৃজনশীল (রচনামূলক) প্রশ্ন কাঠামোতে প্রথমে একটি উদ্দীপক/দৃশ্যকল্প থাকে। উদ্দীপকের ওপর ভিত্তি করে চিন্তন দক্ষতার চারটি স্তরের প্রশ্ন করা হয়। প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতা স্তরের প্রশ্নের উত্ত করার ক্ষেত্রে যাতে শিক্ষার্থীকে অবশ্যই উদ্দীপকের সাহায্য নিতে হয় প্রশ্ন দুইটি সেভাবেই করা হয়।

এসএসসি সকল বিষয়ের সাজেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন।

উদ্দীপক/দৃশ্যকল্প (Stem)

উদ্দীপক/দৃশ্যকল্প হচ্ছে পাঠ্য বিষয়ের আলোকে তৈরি একটি বাস্তব পরিস্থিতি। যা পাঠ্য বিষয়ের আলোকে তৈরি একটি অনুচ্ছেদ, সূত্র, সমীকরণ, সারণি, ডায়াগ্রাম, চিত্র ইত্যাদি। সাধারণত উদ্দীপকটি হয় মৌলিক, সম্পূর্ণ নতুন এবং বাস্তব জীবনের সঙ্গে সম্পর্কত। সৃজনশীল প্রশ্নটি কতটুকু মানসম্পন্ন হলো তা মূলত উদ্দীপকের মানের উপর নির্ভর করে।

উদ্দীপকে বর্ণীত বিষয়বস্তুর আলোকেই চারটি প্রশ্ন (ক, খ, গ ও ঘ অংশ) তৈরি করা হয়ে থাকে। উদ্দীপক বিবেচনায় না রেখে যদি ‘ক’ ও ‘খ’ অংশের উত্তর দেওয়া সম্ভব হতে পারে কিন্তু ‘গ’ ও ‘ঘ’ অংশের উত্তর দেওয়া সম্ভব হবে না। সহজভাবে বলা যায়, প্রশ্নগুলো উদ্দীপকের বিষয়বস্তুর আলোকে না হয়ে থাকলে বা উদ্দীপকটি ঢেকে রেখে যদি ‘গ’ ও ‘ঘ’ অংশের উত্তর করা যায় তবে বুঝতে হবে উদ্দীপকটি সঠিকভাবে প্রণীত হয় নি।

‘ক’ নম্বর প্রশ্নটি জ্ঞানমূলক :

পাঠ্য বইয়ের বিষয়গুলো শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো বুঝেছে কি না তা এ প্রশ্নের মাধ্যমে যাচাই করা হয়। উত্তরের মান ১।

জেএসসি ও এসএসসি সকল বিষয়ের নোট পেতে ক্লিক করুণ

‘খ’ নম্বর প্রশ্নটি অনুধাবনমূলক:

পাঠ্যবইয়ের বিষয়গুলো ঠিকমতো বুঝেছে কি না তা এ প্রশ্নের মাধ্যমে যাচাই করা হয়। উত্তরের মান ২।

‘গ’ নম্বর প্রশ্নটি প্রয়োগমূলক:

পাঠ্য বইয়ের পড়া বিষয়গুলোর ইঙ্গিত উদ্দীপকে থাকে। সে ইঙ্গিতের আলোকে শিক্ষার্থীদের বুঝে নিতে হয় পাঠ্যবইয়ের কোন বিষয় থেকে প্রশ্নটি করা হয়েছে। উদ্দীপকের পরিস্থিতি ও পাঠ্য বিষয়ের জ্ঞানের আলোকে এ স্তরের উত্তর করতে হবে। উত্তরের মান ৩।

‘ঘ’ নম্বর প্রশ্নটি উচ্চতর দক্ষতামূলক:

এ প্রশ্নটিও উদ্দীপক ও পাঠ্যবিষয়ের সমন্বয়ে করা হয়। এ স্তরে পাঠ্য বিষয়ের তথ্য ও নিজস্ব চিন্তা চেতনা যাচাই করা হয়। বিশ্লেষণ করো, যাচাই করো, বিচার করো, যথার্থতা নিরূপণ করো, সার্থকতা নিরূপণ করো, বিচার-বিশ্লেষণ করো, তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো, যুক্তিসহ উত্তর দাও, মতামত দাও ইত্যাদি শব্দগুচ্ছের মাধ্যমে এ ধরনের প্রশ্নগুলো করা হয়। উত্তরের মান ৪।

আমাদের রসায়ন অষ্টম অধ্যায়ের প্লেলিস্ট (Playlist):

ntbangla.com: এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি বিষয়ভিত্তিক নোট, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, সাজেশন, এবং প্রশ্নের ধরণ সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য পাবেন। বিশেষত আপনি এখানে বিজ্ঞান এবং গণিতের বিশেষ নোট পাবেন যা শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক উভয়ের জন্যই প্রচুর উপকারী। পাঠ্যপুস্তকের সাথে আমার এই নোটগুলি অনুশীলন করলে দক্ষতা অর্জন ও পরীক্ষায় ভাল ফলাফলের সহায়ক হবে। ওয়েবসাইটটির নির্মাতা নিতীশ চন্দ্র রায় যিনি ছাতিয়ানি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক হিসাবে ২৩ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আশা করেন যে এই ওয়েবসাইটটি বাংলা সংস্করণ শিক্ষক / শিক্ষার্থীদের সমস্ত চাহিদা পূরণ করবে। তিনি এই ওয়েবসাইটটি দেশে এবং বিদেশে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক উভয়কেই অনুরোধ করেছেন।

4 comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *