জেএসসি বিজ্ঞান সুপার টিপস

Sharing is caring!

সুপার টিপস

পাঠ্যবই অনুসরণ করে বোর্ড ম্যানুয়াল অনুযায়ী গুরুত্বপূর্ণ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন (‘ক’ ও ‘খ’ -জ্ঞান ও অনুধাবনমূলক) উত্তর সহ দেওয়া হয়েছে। বিগত সকল বোর্ড পরীক্ষার প্রশ্নোত্তর তুলে ধরা হয়েছে যা শিক্ষার্থীদের দক্ষতা অর্জনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। কম পরিশ্রমে অধিক জ্ঞান অর্জনের লক্ষ্যে বিজ্ঞান সকল অধ্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তরগুলি ব্যাখ্যা সহ সাজেশনটিতে রয়েছে।

একটি সৃজনশীল প্রশ্নে চার ধরনের (জ্ঞান, অনুধাবন, প্রয়োগ ও উচ্চতর দক্ষতা) প্রশ্ন থাকে। যেগুলিকে ক, খ, গ ও ঘ দ্বারা সূচিত করা হয়। নম্বর বন্টন (১+২+৩+৪=১০) করা হয় জ্ঞানের স্তরের উপর ভিত্তি করে যা দেখানো হয়েছে। খুব সুন্দর ভাবে অধ্যায় ভিত্তিক প্রশ্নোত্তরগুলি সাজানো হয়েছে। যা শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বইয়ের পাশাপাশি অনুশীলনের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জনে সহায়ক হবে।

ক নং জ্ঞান মূলক প্রশ্ন যা সরাসরি পাঠ্যবইয়ের সাথে সম্পৃক্ত। শিক্ষার্থীরা পাঠ্য বই থেক অর্জনকৃত জ্ঞানের মাধ্যমে ক নং প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। খ নং অনুধাবনমূলক প্রশ্ন যা শিক্ষার্থীদের জ্ঞান ও অনুধাবন এই দুইটি সমন্বয়ে উত্তর দিতে হয়। এই ক্ষেত্রে কি এবং কেন তা উত্তর করতে হয়। গ-নং প্রয়োগ যা অর্জনকৃত জ্ঞান ও অনুধাবনকে প্রয়োগ করতে হয়। ঘ-নং উচ্চতর দক্ষতার প্রশ্ন যা কেন্দ্র বিচ্যুতি হিসেবে ও মূল্যায়ন করে উত্তর দিতে হয়। অর্থাৎ সবগুলিস্তর একিভূত হয়।

জে এস সি বিজ্ঞান সুপার টিপস পেতে নিচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।

NTBangla সাজেশনটির বৈশিষ্ট্যটি হল শিক্ষার্থীদের জন্য সহজ বাংলা ভাষায় পাঠ্য বইয়ের সামঞ্জস্য রেখে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বিশ্লেষণ করা। পরীক্ষায় কমন উপযোগী প্রশ্নোত্তর নিয়ে আলোচনা। বোর্ড কর্তৃক নমুনা প্রশ্নোত্তর বিশ্লেষণ করে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কেমন হয় তা সঠিক ধারণা দেওয়া হয়েছে।

আমার বিশ্বাস পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি সাজেশনটি অধ্যায়ন করলে সব ধরনের শিক্ষার্থীরা সহজে বুঝতে এবং পরীক্ষায় সাফল্য আনতে পারবে। সাজেশনটিতে সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর কিভাবে করতে হয় তা সঠিক ভাবে দেখানো হয়েছে। অধিক অনুশীলন ও চর্চার মাধ্যমে জ্ঞান বৃদ্ধি ও দক্ষতা অর্জনের সহায়ক হিসাবে সাজেশনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আশা রাখি পাঠ্য পুস্তকের পাশাপাশি সাজেশনটি অনুশীলন করলে দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। শিক্ষাই জাতীয় জীবনের সর্বোচ্চ স্তরের পূর্বশর্ত। এছাড়াও এই স্তরের শিক্ষার উদ্দেশ্য প্রাথমিক স্তরে প্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষার প্রাথমিক জ্ঞান এবং দক্ষতা সম্প্রসারণ ও একীকরণের মাধ্যমে উচ্চ শিক্ষাকে যোগ্য করে তোলা। জ্ঞানের এই প্রক্রিয়াটির আওতায় দেশের অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পরিবেশগত পটভূমির পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও সক্ষম নাগরিক হওয়া মাধ্যমিক শিক্ষার বিষয়।

এই ওয়েব সাইটের আমার লক্ষ্য সরকারের আধুনিক ডিজিটাল শিক্ষার অগ্রগতি আনতে হবে। তদুপরি, দরিদ্র শিক্ষার্থীদের সহায়তা এবং সকল শিক্ষার্থী ঘরে বসে দক্ষতা অর্জন। সুতরাং, আমার অনুরোধ শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীরা সকলেই আমার ওয়েব সাইটে প্রবেশ করুন এবং আমাকে কাজ করতে উৎসাহিত করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.